বিষধর ‘রাসেল ভাইপার’ ধরে বাড়িতে নিয়ে এলেন যুবক

ভোলায় বিষধর রাসেল ভাইপার ধরে বস্তায় ভরে বাড়িতে নিয়ে এসেছেন ইসমাইল হোসেন নামে এক যুবক। তবে মঙ্গলবার সকালে তার বাড়ি থেকে সাপটি উদ্ধার করেছেন

ভোলা বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কর্মকর্তা। ইসমাইল হোসেনের বাড়ি ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ধনিয়া গ্রামে। তিনি পেশায়

অটোচালক। ভোলা বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম জানান, রাসেল ভাইপার পৃথিবীর ভয়ংকর বিষধর সাপের মধ্যে পঞ্চম। এ সাপের ভ্যাকসিন আজ পর্যন্ত আবিষ্কার হয়নি। স্থানীয়রা জানায়, সোমবার সন্ধ্যায় হাত-মুখ ধোয়ার জন্য ধনিয়া গ্রামের নদীর পাড়ে যান ইসমাইল। এ সময় নদীর তীরের ব্লকের

ফাঁক দিয়ে তিনি সাপটি যেতে দেখেন। পরে সাপের লেজ ধরে ওপরে ছুড়ে মারেন। এরপর তিনি একটি প্লাস্টিকের বস্তায় ভরে সাপটি বাড়িতে নিয়ে আসেন। ইসমাইল হোসেন বলেন, সাপটিকে দেখে আমি অজগর সাপ ভেবেছিলাম। যদি ব্লকের ভেতরে আশ্রয় নেয় তাহলে হয়তো কাউকে কামড় দিতে পারে। তাই সাপটিকে দেখেই লেজে ধরে ওপরে উঠিয়ে বস্তায় ভরে রাখি। পরে বন বিভাগকে খবর দেয়া হয়। তিনি আরো বলেন, মঙ্গলবার বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ অফিসারদের মাধ্যমে জানতে পারলাম এটি অনেক ভয়ংকর সাপ। কিন্তু আমি এটা আগে বুঝতে পারিনি।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *