ভাস্কর্য ইস্যুতে হিন্দু থেকে মুসলিম হওয়া যুবকের স্ট্যাটাস ভাইরাল

চলমান ভাস্কর্য বি’তর্কের মধ্যে ফেসবুকে বিষয়টি নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে আলোচনায় এসেছেন এক নওমুসলিম।ইতিমধ্যে তার এই স্ট্যাটাসটি ভাইরাল হয়েছে। তার নাম

সত্যজিৎ রায় (২২)। তিনি পেশায় একজন ফ্রিল্যান্সার। মুসলিম হয়ে তিনি তার নাম রেখেছেন মুহাম্মাদ। তিনি রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকায় থাকেন। ধর্মান্তরিত হওয়ার পর থেকে তিনি তার পরিবার থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন জীবনযাপন করছেন।স্বনির্ভর এ যুবক ভাস্কর্য নিয়ে ফেসবুকে লিখেছেন, ‘মুখ খুলতে বাধ্য হলাম। যেই মূর্তি-ভাস্কর্য বাদ দিয়ে

হিন্দু থেকে ইসলামে দাখিল হলাম, আজ সেই মুসলিমই কুরআন হাদিসের বিপক্ষে।’মুহাম্মাদের প্রোফাইল থেকে গত রবিবার (৬ ডিসেম্বর) দেয়া স্ট্যাটাসটিতে এখন পর্যন্ত প্রায় ৩ হাজার মানুষ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। ৫শ মানুষ মন্তব্য করেছেন এবং ১ হাজারেও বেশি ব্যবহারকারী এটি শেয়ার করেছেন। মন্তব্যের ঘরে বেশিরভাগ ব্যবহারকারী মুহাম্মাদের এমন কাজের প্রশংসা করেছেন। তারা বলছেন, ‘মুহাম্মাদ ইসলামে এসে এ ধর্মের মর্ম বুঝতে পেরেছেন। বিষয়টি নিয়ে সবার সোচ্চার হওয়া প্রয়োজন।’ মোহাম্মদ নিলয় নামে একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, আপনি সফল আল্লাহ প্রেমিক ভাই। যারা একটা দলের জন্য আল্লাহর আদেশ ভুলে গিয়ে ভাস্কর্য আর মূর্তি প্রেমিক হচ্ছে, তাদের হিসাব

আল্লাহ নেবেন। আল্লাহ সবাইকে সঠিক বুঝদান করুক। তানভীর আহমেদ লিখেছেন, ভাই এদের নামগুলো শুধু মুসলমানদের মত। আসলে এরা ইসলাম থেকে বেরিয়ে গেছে। আল্লাহ এবং রাসূলের যারা বিরোধী, তারা আর যাইহোক মুসলিম থাকে না। আমাদেরকে এসব বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে। রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকার জান-ই-আলম সরকার উচ্চ বিদ্যালয় থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত পড়ালেখা করেছেন মুহাম্মদ। ছোট থেকেই একাডেমিক পড়ালেখায় মনযোগী ছিলেন না নওমুসলিম মুহাম্মাদ। কর্মমুখী শিক্ষায় ঝোক ছিল তার। সে থেকে পরবর্তীতে এসএসসি পরীক্ষার পর শুরু করেন ফিল্যান্সিং। বর্তমানে তিনি এর মাধ্যমে স্বনির্ভর জীবনযাপন করছেন।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *