অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি,সন্তানেরা মৃত বাবার ঋণ পরিশোধ করলেন ৪৬ বছর পর

কর্জ গ্রহণের ৪৬ বছর পর পাওনাদারদের টাকা পরিশোধ করলেন দেনাদারের সন্তানেরা। বিশ্বাস করতে কষ্ট হলেও আজ বৃহস্পতিবার বিকালে সাতক্ষীরা শহরতলীর সুলতানপুর

কাজীপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। খুলনা জেলার কয়রা থানার বধালী গ্রামের নেছার আলী (৫৭) ও সহিদুল ইসলাম (৫২) জানান, তাদের বাবার নাম জব্বার সরদার। বাবা

জব্বার সরদার দেশ স্বাধীনের পর সাতক্ষীরা শহরে থেকে ক্ষুদ্র ব্যবসা করতেন। ১৯৭৫ সালে তীব্র অভাব অনাটন দেখা দিলে তিনি পরিবারের ভরণ-পোষণৈর জন্য সুলতানপুর কাজীপাড়ার শেখ নুরুল হকের নিকট থেকে ১৩ শ টাকা কর্জ গ্রহণ করেন। গত ২০০০ সালে কর্জগ্রহীতা জব্বার সরদার মৃ’ত্যু বরণ করেন। মৃ’ত্যুকালে তিনি তার সন্তানদের নাম ঠিকানা দিয়ে তার কর্জ করা ১৩ শ টাকা পরিশোধ করার জন্য সন্তানদের অছিয়ত করে যান। মৃ’ত্যুর পর জব্বার সরদারের স্বজনরা সাতক্ষীরা শহরে এসে শেখ নুরুল

হককে খোঁজাখুঁজি করেও না পেয়ে ফিরে যান। এর মধ্যে পাওনাদার শেখ নুরুল হক গত ২০১২ সালে মৃ’ত্যু বরণ করেন। আজ মৃ’ত জব্বার সরদারের দুই ছেলে সারাদিন মৃ’ত শেখ নুরুল হকের ওয়ারিশদের খোঁজা শুরু করে। দিন শেষে তারা নুরুল হকের তিন কন্যা সন্তানের খোঁজ পান। তারা সেখানে হাজির হয়ে ঘটনার বর্ণনা দেন। এ সময় প্রতিবেশীরাও জড়ো হয়ে তাদের মুখ থেকে শোনেন ৪৬ বছর আগে কর্জ গ্রহণের ঘটনা। নুরুল হকের স্বজনরা সেই ১৩ শ টাকা গ্রহণ করে স্থানীয় জামে মসজিদে দান করে দেন। বাবার ১৩ শ টাকা দেনা পরিশোধ করে গুনা মাফের দোয়া চাইলেন নেছার আলী ও শহিদুল ইসলাম। এ সময় জন্মদাতা বাবার দেনা শোধ করত পেরে অঝোওে কাঁদতে থাকেন দুই ভাই। বাবার জন্য ভালোবাসায় দেখে চোখ ভিজে আসে উপস্থিত মানুষেরও।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *