দেশে কালো মেঘ দেখা যাচ্ছে: ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর প্রসঙ্গে জাফরুল্লাহ

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ও প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, দেশে কালো মেঘ দেখা যাচ্ছে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের আগমন নিয়ে তিনি এ মন্তব্য

করেন। শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল ও কারা হেফাজতে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর প্রতিবাদে এক মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

মিছিলে তিনি এ কথা বলেন। ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি এই মানববন্ধন আয়োজন করে। তিনি বলেন, দেশে কালো মেঘ দেখা যাচ্ছে। আজকে জয় শংঙ্কর এসছেন সেই গৎবাঁধা কথা বলছেন। কিন্তু ফেলানী হত্যার বিচার কি করেছে? প্রতি সপ্তাহের সীমান্তে মানুষ মারা যাচ্ছে। কানেকটিভিটি মানেটা কি? গুজরাটের পণ্য আসামে যেতে পারে না, সেটা আমার ওপর দিয়ে যাবে, সুলভে। আর আমরা আমাদের বুকের রক্ত দিয়ে করা দেশটা তাদের জন্য ছেড়ে দেব। ডিজিটাল অ্যাক্টের মূল কথা ছিল

আর্থিক লেনদেনের সরকারকে ক্ষতিগ্রস্ত করা দেশকে ক্ষতিগ্রস্ত করা ব্যক্তিকে অ্যারেস্ট করা জানিয়ে জাফরুল্লাহ বলেন, কিন্তু একজনকেও জিডিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে অ্যারেস্ট করেছেন। একজন কার্টুনিস্ট কার্টুন একে ব্যঙ্গ করে কি ক্ষতি করতে পারে। তাকে ১০ বার (জামিন) দেননি। আপনারা বলছেন মুশতাকের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। কাউকে যদি আপনারা চিকিৎসা না দেন তারপর যদি মৃত্যু হয় সেটাকে কি স্বাভাবিক মৃত্যু বলা যায়। তিনি বলেন, এক লাখের বেশি লোক জেলে আছেন ব্রিট্রিশ আমলেও এত অভিযুক্ত লোক জেলে ছিল না, পাকিস্তান আমলেও ছিল না, এখন আছেন। ডা. জাফরুল্লাহ আরও বলেন, আমি প্রস্তাব করছি আপনি এই ডিজিটাল অ্যাক্ট অবশ্যই কবর দিয়ে দেন, এটা যে কাজের সৃষ্টি করেছেন সে কাজের হয় নাই। এখন পর্যন্ত জিজিটাল আইনে রাষ্ট্রের কোনো অর্থনৈতিক মামলা হয়নি। তার সঙ্গে সঙ্গে এসব করার জন্য এই আইনের প্রয়োজন নেই। অন্যান্য এনাফ আইন আছে। দরকার হলে সেই আইনের সংশোধন করে নেন। এই আইনের সংশোধন করে লাভ নেই। এটা মিথ্যাচার হবে, এটা প্রতারণা হবে। আর কতদিন প্রতারণা করে চলবেন।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *