হাত দিতেই চলতে শুরু করলো ভ্যান, মেহগনি গাছে ধাক্কা লেগে প্রান গেল সুমাইয়ার

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টা। বাড়ির সামনে ব্যাটারিচালিত অটোভ্যানের সুই’চ অন করে রেখে বাজার দিতে ভেতরে গিয়েছিলেন দাদা ময়লাল হোসেন। এ সময় পাশেই

খেলাধুলা করছিল তিন বছর বয়সী নাতনি সুমাইয়া। কেউ না থাকায় খেলার ছলে ভ্যানে চেপে বসে ওই শিশুটি। হাতলে হাত দিতেই ভ্যানটি চলতে শুরু করে। নিয়ন্ত্রণ না

রাখতে পেরে বাড়ির পাশেই একটি মেহগনি গাছে সজোরে ভ্যানটি গিয়ে ধা’ক্কা লাগলে সুমাইয়ার মুখমণ্ডল থেঁ’তলে যায়। গু’রুত’র আহ’তাবস্থায় উ’দ্ধা’র করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমাইয়াকে মৃ’ত ঘোষণা করেন। এমনই এক ম’র্মা’ন্তিক দু’র্ঘট’না ঘটেছে পাবনার চাটমোহর উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের বোঁথর গ্রামে। এ সময় পুরো হাসপাতালে কা’ন্নার রো’ল পড়ে যায়। মেয়ের এমন মৃ’ত্যু’তে শো’কে পা’থর হয়ে গেছেন বাবা সাগর ইসলাম। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে থানার ওসি আমিনুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, বিষয়টি খুবই ম’র্মা’ন্তিক। পরিবারের লোকজন হাসপাতাল থেকে শিশুটির লা’শ’ বাড়িতে নিয়ে গেছেন। এ ব্যাপারে থানায় কেউ কোনো অ’ভিযো’গ করেননি বলে জানান তিনি।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *