আর্মেনিয়া-আজারবাইজান যু’দ্ধে কোন দেশ কার পক্ষে? দেখে নিন!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে যু’দ্ধে জড়িয়ে গেছে আর্মেনিয়া-আজারবাইজান। যু’দ্ধে দিন দিন বাড়ছে দু’দেশের নিহ’তের সংখ্যা। সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাত পর্যন্ত নিহ’তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে

২০০ তে। আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত আজারবাইজানের ভূখ’ণ্ড কারাবাখ ১৯৯১ সালে দ’খ’ল করে নেয় আর্মেনিয়ার সেনাবা’হিনী। এরপর থেকে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত দু’জাতির মধ্যে উত্তে’জনা শুরু হয়। নিরা’পত্তা

পরিষদের ৪টি এবং জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের ২টি প্রস্তাবনাসহ আন্তর্জাতিক অনেক সংস্থা দ’খ’লকৃত ভূমি থেকে আর্মেনিয়ার প্রত্যা’বর্তন দাবি করলেও তা আমলে নেয়নি আর্মেনীয় সরকার। ১৯৯২ সালে ফ্রান্স, রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের সমন্বয়ে সং’ক’ট সমাধানের উপায় খোঁ’জার জন্য মিনস্ক গ্রুপ তৈরি হয়। ১৯৯৪ সালে একটি শান্তি চু’ক্তিও সই হয়। কিন্তু সং’কট নির’সনে তা ভূমিকা রাখতে পারেনি। আজারবাইজান এবং আর্মেনিয়ার

মধ্যকার এই ল’ড়া’ই তুরস্ক এবং রাশিয়াকে আরও একবার মু’খো’মু’খি করেছে। Powered by Ad.Plus পশ্চিমা চা’প ও ভী’তি উপে’ক্ষা করে তুরস্ক বিভিন্ন ক্ষেত্রে রাশিয়ার আরও কাছে এলেও সিরিয়া এবং লিবিয়াতে পর’স্পরবিরো’ধী অবস্থানে আছে আঙ্কারা এবং মস্কো। তুরস্ক এবারে খুব হাঁকডাক দিয়েই আজারবাইজানের পক্ষ নিয়েছে। প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান, তার উপদেষ্টারা, তুর্কি সেনাবা’হি’নী, দেশটির প্রধান

রাজনৈতিক দলগুলোসহ আপামর জনসাধারণ বাকুর সঙ্গে একা’ত্মতা ঘোষণা করেছে। আজারবাইজানের সঙ্গে এমনিতেই তুরস্কের জাতিগত মিল এবং ঐতিহাসিক সম্পর্ক রয়েছে। তুরস্ক এবং আজারবাইজানকে বলা হয় ‘দুই রাষ্ট্র এক জাতি।’ তুরস্ক এ দেশটিকে প্রকৃতপক্ষেই ভ্রাতৃপ্রতিম দেশ হিসেবে মনেপ্রাণে বিশ্বাস করে। এ ছাড়াও দেশটি এখন তুরস্কে প্রধান গ্যাস রফতানিকারক দেশ। এ ছাড়া নাগরনো-কারাবাখ অঞ্চলের অ’বৈ’ধ দ’খলের বি’রু’দ্ধে তুরস্ক সবসময়ই সোচ্চার ছিল। আবার রাশিয়া সেই সোভিয়েত আমল থেকেই আজারবাইজান এবং আর্মেনিয়ার ওপর খ’বরদা’রি করে আসছে। দুইও দেশের সঙ্গে মস্কোর সম্পর্ক দ’হরম-ম’হরম। তবে রাশিয়া সবসময়ই আর্মেনিয়াকে আরও বেশি সাম’রিক, রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতা করে আসছে। এখন পর্যন্ত আজারবাইজানের পক্ষে সরাসরি সমর্থন জানিয়েছে তিনটি মুসলিম দেশ। ওই দেশগুলো হলো- তুরস্ক, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *