কুমারীত্ব পরীক্ষায় ফেল, ভেঙে গেল দুই বোনের সংসার!

কুমারীত্ব পরীক্ষায় ফেল করায় ভারতে দুই বোনের বিয়ে ভেঙে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। যদিও দেশটিতে এই ধরনের পরীক্ষা করা সম্পূর্ণ

বেআইনি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজ জানিয়েছে, বিয়ের কিছুদিন পর তাদের স্বামী গ্রাম্য পঞ্চায়েতে তালাকের আবেদন জানান। তাদের

অভিযোগ, স্ত্রীরা কুমারীত্ব পরীক্ষায় ফেল করেছে। দুর্ভাগ্যের বিষয় তাদের সেই আবেদনে সম্মতি দিয়েছে পঞ্চায়েতও। এ ঘটনায় স্বামী, শাশুড়ি এবং পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই বোনকে বিয়ে বিচ্ছেদের নির্দেশ দিয়েছিলেন দুজনের স্বামী, তার শাশুড়ি ও পঞ্চায়েতের সদস্যরা। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ বাদী হয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি এবং মহারাষ্ট্র সামাজিক বয়কট (প্রতিরোধ, নিষিদ্ধকরণ ও প্রতিরোধ) আইনের অধীনে মামলা করেছে।

দুই বোনের অভিযোগ, বিয়ের পরে তাদের দুজনকে শ্বশুরবাড়িতে আলাদা কক্ষে নিয়ে কুমারীত্ব পরীক্ষা করা হয়। জানানো হয়, এটাই নাকি তাদের ঐতিহ্য। পরে তারা দাবি করে, দুজনই কুমারীত্ব পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়েছেন। এরপর অভিযোগ করা হয়, তাদের বিয়ের আগেই অন্য কারও সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক ছিল।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *