‘খালেদা জিয়ার বায়োকেমিক্যাল টেস্ট রিপোর্টের অপেক্ষা’

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।তবে তার করোনার কোনো উপসর্গ নেই। পরীক্ষার জন্য রক্তের নমুনা নেওয়া

হয়েছে। তার রক্তে কোনো ঝুঁকি আছে কি না, জানার জন্য বায়োকেমিক্যাল টেস্ট করা হয়েছে। রিপোর্ট আসার পর পর্যালোচনা করা হবে।

মঙ্গলবার বিকালে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের বাসভবন ফিরোজায় যান তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. আল মামুন। বিকাল ৩টা থেকে এক ঘণ্টা তিনি খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। এ সময় বায়োকেমিক্যাল টেস্টের জন্য একজন টেকনোলজিস্ট খালেদা জিয়ার রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেন। খালেদা জিয়াকে দেখে এসে সাংবাদিকদের ডা. মামুন এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন। এখন

পর্যন্ত খালেদা জিয়ার যে শারীরিক অবস্থা তাতে বাসায় রেখেই তার চিকিৎসা সম্ভব। ডা. মামুন বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা তত্ত্বাবধান করছেন তার পুত্রবধূ ডা. জোবাইদা রহমান। তিনি দেশ-বিদেশের চিকিৎসকদের সঙ্গে পরামর্শ করে নির্দেশ দিচ্ছেন। টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে চেয়ারপারসনের চিকিৎসা চলছে। এর আগে দুপুরে গুলশান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও জানান, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। ইতোমধ্যে তার চিকিৎসাও শুরু হয়েছে। সারা দেশের মানুষ দোয়া করছে তিনি যেন সুস্থ হয়ে ওঠেন। আমি আবারও দেশবাসীর কাছে সেই দোয়া চাই। তিনি বলেন, আমরা সবসময় খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি চেয়ে

আসছি। আমি গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। তিনি এই করোনার মধ্যে অবিলম্বে খালেদা জিয়ার পূর্ণাঙ্গ জামিন চেয়েছেন। আমি তার এই বক্তব্যের সঙ্গে সম্পূর্ণ একমত। মানবিক দিক বিবেচনা করে তাকে (খালেদা জিয়া) স্থায়ী জামিন দেওয়া হোক।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *