অ্যাম্বুলেন্সের অভাব, মোটরসাইকেলে মায়ের ম’র’দেহ শ্ম’শানে নিলো ছেলে

চলতি মাসে ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ব্যাপক হারে বেড়েছে। আক্রান্তের দিক থেকে বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে এবং মৃত্যুর দিক থেকে চতুর্থ

স্থানে রয়েছে দেশটি। এই অবস্থায় একের পর এক খারাপ খবর প্রকাশ্যে আসছে। মৃত করোনা রোগীদের মরদেহ সৎকার করা নিয়েও মর্মান্তিক

ঘটনা ঘটছে। এবারের ঘটনাস্থল রাজধানী দিল্লি বা মহারাষ্ট্র নয়। এক মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে অন্ধ্রপ্রদেশে। সেখানে অ্যাম্বুলেন্সের অভাবে মোটরসাইকেলে এক নারীর মরদেহ সৎকারের জন্য শ্মশানে নিয়ে গেছেন তার ছেলে ও নাতি। সম্পর্কিত খবর কিছুক্ষণের মধ্যেই হাসপাতালে যাবেন খালেদা জিয়া করোনায় সাবেক এমপি মাহবুবুর রহমানের মৃত্যু ভারত-ব্রাজিল-দ. আফ্রিকার ওপর বেলজিয়ামের নিষেধাজ্ঞা মঙ্গলবার

(২৭ এপ্রিল) এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকাক্কুলাম জেলায়। জানা গেছে, করোনায় মৃত ওই নারীর নাম মান্দাসা মন্ডল (৫০)। তার শরীরে করোনার লক্ষণ থাকায় কোভিড টেস্টের জন্য তাকে স্থানীয় ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে করোনার রিপোর্ট হাতে আসার আগেই মারা যান তিনি। এ বিষয়ে তার ছেলে জানিয়েছেন, ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বাইরে তার মা মারা গেলে সেখানে তারা অ্যাম্বুলেন্সের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। ঘটনার অনেক্ষণ পরও যখন কোনো অ্যাম্বুলেন্স জোগাড় করা যায়নি তখন বাধ্য হয়ে তারা

নিজেদের বাইকে করেই মায়ের মরদেহ গ্রামের শ্মশানে সৎকারের জন্য নিয়ে আসেন। যেখানে গত বছর করোনা মহামারির শুরুতে অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার করোনা সংক্রমিত রোগীদের সহায়তায় ১ হাজার ৮৮টি অ্যাম্বুলেন্স এবং ১০৪টি মোবাইল মেডিকেল ইউনিট চালু করেছিলো। সেখানে এমন মর্মান্তিক ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। নিন্দার ঝড় বইছে বিভিন্ন মহলে।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *