রাষ্ট্রীয় হেফাজতে মৃত্যুর দায় রাষ্ট্রকেই নিতে হবে

হেফাজত নেতা ইকবাল হোসেনের রাষ্ট্রীয় হেফাজতে মৃত্যুর বিশ্বাসযোগ্য তদন্ত করে দায়ীদের বিচার করার দাবি জানিয়েছে গণসংহতি আন্দোলন।

শুক্রবার (২১ মে) সন্ধ্যায় সংবাদ মাধ্যমে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি ও নির্বাহী সমন্বয়কারী (ভারপ্রাপ্ত) আবুল

হাসান রুবেলের পাঠানো এক যৌথ বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়। নারায়ণগঞ্জের হেফাজতে ইসলাম নেতা ইকবাল হোসেনের মৃত্যুতে গভীর ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতিতে বলা হয়, রাষ্ট্রের হেফাজতে থেকে যে কারো মৃত্যুর দায় রাষ্ট্রকেই বহন করতে হবে। ভোটারবিহীন অগণতান্ত্রিক এই সরকারের সময়ে হেফাজতে থাকা অবস্থায় নির্যাতনে একের পর এক মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। এই মৃত্যুর মিছিল আর কোনোভাবেই বাড়তে দেওয়া

যাবে না। সম্পর্কিত খবর হেফাজত নেতা মনির হোসেন কাসেমী গ্রে'প্তার মামুনুলের ‘দুই বিয়েতে’ ছিল না কাজি, কাবিননামা-দেনমোহর: পুলিশ হেফাজত নেতা ইকবালকে যথাযথ চিকিৎসা দেওয়া হয়নি: বাবুনগরী আরও বলা হয়, রাষ্ট্রের হেফাজতে মৃত্যু একটা ভয়ঙ্কর অপরাধ। এই অপরাধের তদন্ত অপরাধের দায়ে অভিযুক্ত সংস্থার মাধ্যমে হওয়া ন্যায়বিচারের পক্ষে বড় বাধা। পুলিশ হেফাজতে মৃত্যুর তদন্ত বিচার বিভাগের মাধ্যমে নিরপেক্ষভাবে করতে হবে। তাকে রিমান্ডে নির্যাতন করা হয়েছে কি না সেটা জানতে হবে। এসব বিষয়ের বিশ্বাসযোগ্য তদন্ত

ছাড়া কখনোই স্বাভাবিক মৃত্যু বলা যায় না। এভাবে রাষ্ট্রীয় বাহিনীর হাতে অসীম ক্ষমতা তুলে দেওয়া হয়েছে যা সব নাগরিকের জন্য বড় উদ্বেগের কারণ। আমরা রিমান্ডে সব ধরনের নির্যাতন ও হত্যার অবসান চাই।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *