মাত্র ৫ মাসে কুরআনে হাফেজ হলো হাটহাজারী মাদরাসার মুহাম্মদ ঈসা

মাত্র ৫ মাসে পবিত্র কুরআন হিফজ করে কৃতিত্ব অর্জন করেছে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার তাজবীদ

বিভাগের ছাত্র মুহাম্মদ ঈসা। হাফেজ মুহাম্মদ ঈসা(২৩) চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের পূর্ব গাটিয়া ডেঙ্গাঁ গ্রামের মোহাম্মদ জাকারিয়ার ছেলে। সে

২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে হাটহাজারী মাদরাসা থেকে দাওরায়ে হাদীস(মাস্টার্স) সম্পন্ন করে। পরে হাটহাজারী মাদরাসাতেই উচ্চতর তাফসীর ও আরবী আদব বিভাগে অধ্যয়ন শেষ করে বর্তমানে তাজবীদ বিভাগে পড়াশোনা করছেন। ইচ্ছে আর দৃঢ মনোবল থাকলে যেকোনো চেষ্টায় সফলতা অর্জন করা সম্ভব হয়, এ কথা সত্য এবং বাস্তব প্রমাণ

করেছে হাফেজ মুহাম্মদ ঈসা। সাধারণত হাফেজ হয় ছোট বয়সে। তাই অনেকেই মনে করে থাকেন যে, বয়স বেড়ে গেলে হিফজ করা যায় না বা সম্ভব নয়। কিন্তু হাফেজ মুহাম্মদ ঈসা এ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন যে, ইচ্ছে থাকলে এবং চেষ্টা করলে আল্লাহর রহমতে যে কোনো বয়সে পবিত্র কুরআনের হাফেজ হওয়া সম্ভব। সবচে আশ্চর্যজনক হচ্ছে মুহাম্মদ ঈসা’র হাফেজ হওয়ার বিস্ময়কর ধরণ। হাফেজ ঈসা ও তার শিক্ষক মাওলানা আব্দুস সুবহান উভয়েই হাটহাজারী মাদরাসার অধ্যয়নরত ছাত্র। নিজের পড়াশোনা ঠিক রেখে অবসর সময়ে মেহনত করে মাত্র পাঁচ মাসে পুরো কুরআনে মাজীদের হেফজ্ শেষ করে বিস্ময়কর দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিনি। মুহাম্মদ ঈসার হাফেজ হওয়ার

শিক্ষকের নাম মাওলানা আব্দুস সুবহান। তিনি ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষে হাটহাজারী মাদরাসা থেকে দাওরায়ে হাদীস (মাস্টার্স) সম্পন্ন করেন। এবছর উচ্চতর আরবী আদব (সাহিত্য) বিভাগে অধ্যয়ন করেছেন। বর্তমানে উচ্চতর তাফসীর বিভাগে পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি হাটহাজারী মাদরাসার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ বাইতুল করীমের ইমামতির দায়িত্ব আনজাম দিচ্ছেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মাওলানা আব্দুস সুবহান ইনসাফকে জানান, ঈসার হাফেজ হওয়ার বিষয়টা সত্যিই আনন্দ ও অনেক বড় কৃতিত্বের বিষয়। আমি আশাবাদী ঈসার হাফেজ হওয়াটা অন্যান্য তরুণদের আগ্রহ ও অনুপ্রেরণা যোগাবে। বিশেষত যারা হাফেজ হতে ইচ্ছুক কিন্তু ছোট বয়সে হাফেজ হতে পারেনি, তাঁদের জন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে ঈসা। তিনি বলেন, মানুষ সাধারণত ছোট বয়সে হাফেজ হয় কিন্তু পবিত্র কুরআন হিফজের প্রতি ঈসার আগ্রহ উদ্দীপনা এতো বেশি ছিল যে, আমি প্রায় বাধ্য হয়েই ঈসাকে নিয়ে অনেক পরিশ্রম করেছি। আলহামদুলিল্লাহ অতি স্বল্প সময়ে সে হিফজ সমাপ্ত করতে সক্ষম হয়েছে৷ এই বয়সে হাফেজ হলেন, তাও খুবই অল্প সময়ে! এ প্রশ্নের জবাবে হাফেজ মুহাম্মদ ঈসা ইনসাফকে বলেন, আমার ছোটবেলা থেকেই ইচ্ছা ছিল হাফেজ হবো। কিন্তু কিছু প্রতিবন্ধকতার কারণে তা আর সম্ভব হয়ে উঠেনি। আলহামদুলিল্লাহ, আমার চেষ্টা এবং উস্তাদের সহায়তায় ও আল্লাহর রহমতে আমি হিফজ শেষ করতে সক্ষম হয়েছি, তাই আল্লাহর নিকট শুকরিয়া জ্ঞাপন করছি।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *