প্রেমের ফাঁদে পড়ে ব্যাংক কর্মকর্তা খোয়ালেন দুই লাখ টাকা!

বিউল হোসেন রবি, চট্টগ্রাম থেকে: বেসরকারি ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা সোহেল (ছদ্মনাম)। পরিচিতদের কাছ থেকে পাওয়া একটি মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে পরিচয় হয় এক

তরুণীর সঙ্গে। একপর্যায়ে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হলে ওই তরুণী তাকে বাসায় যাওয়ার দাওয়াত দেয়। কথামতো মেয়েটির দেয়া এলাকায় গিয়ে ফোন দিলে পাঠায় রায়হান নামে এক

ছেলেকে। রায়হান তাকে নিয়ে যায় নির্জন একটি স্থানে। যেখানে আগে থেকেই লেদু, গিয়াস, জাহাঙ্গীরসহ উপস্থিত ছিল আরও কয়েকজন। এবার সোহেল ‘অবৈধ সম্পর্ক’ করতে সেখানে গিয়েছে বলে হুমকি দিয়ে দাবি করে মুক্তিপণ। কোনোমতে দুই লক্ষ টাকা বিকাশে এনে দিয়ে সেবারের মতো বেঁচে যায় সোহেল। এমন অভিযোগের ভিত্তিতেই চট্টগ্রামে চারজনকে গ্রে'ফতার করেছে বাকলিয়া থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) বাকলিয়ার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রে'ফতার করা হয়। গ্রে'ফতারকৃতরা হলেন— গিয়াস উদ্দিন (২৯), মো. রায়হান (২৮), মো. শহীদ আলম ওরফে লেদু (৩০) ও জাহাঙ্গীর আলম (৩০)। পুলিশ জানায়, গ্রে'ফতাররা নারীসহ অন্তত ১০

জনের সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য। নারীদের দিয়ে উচ্চবিত্ত লোক জনকে জিম্মি করে টাকা আদায়ের পাশাপাশি চুরি ছিনতাইতেও তারা জড়িত। বিষয়টি নিশ্চিত করে বাকলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. রুহুল আমিন বলেন,‘মোবাইল ফোনে পরিচয়ের সূত্র ধরে গত ৫ মার্চ বিকেলে ব্যাংক কর্মকর্তাকে দাওয়াত দেয় ওই তরুণী। ওই দিন ব্যাংক কর্মকর্তা বাকলিয়া থানার রাহাত্তারপুল এলাকায় গিয়ে মেয়েটিকে ফোন করে। এ সময় ওই তরুণী তাকে বাসায় নেওয়ার জন্য রায়হান নামে একজনকে পাঠাচ্ছেন বলে জানান।’ ‘রায়হান রাহাত্তারপুল থেকে ওই ব্যাংক কর্মকর্তাকে নিয়ে চান্দাপুকুর এলাকা বিসমিল্লাহ টাওয়ার নামে একটি ভবনের পেছনে খালি জায়গায় নিয়ে যায়। যেখানে আগে থেকেই লেদু, গিয়াস, জাহাঙ্গীরসহ আরও কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।’ তিনি বলেন, ‘ওই সময় ছু'রিকাঘাতের ভয় দেখিয়ে ‘অবৈধ সম্পর্ক’ করতে ব্যাংক কর্মকর্তা সেখানে গিয়েছেন বলে পুলিশে ধরিয়ে দিবে বলে হুমকি দেয় এবং দুই লাখ টাকা দাবি করে। পরবর্তীতে ওই ব্যাংক কর্মকর্তা তার ছোট ভাইয়ের মাধ্যমে একাধিক বিকাশ নম্বর থেকে দুই লাখ টাকা পরিশোধ করে ছাড়া পান।’ আশেপাশের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে জানিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন, ‘বিষয়টি বেশ কয়েকদিন ওই ব্যাংক কর্মকর্তা গোপন রাখলেও গতকাল (বৃহস্পতিবার) আমাদের জানান। পরে অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রে'ফতার করা হয়েছে।’ ওসি বলেন, ‘এ ঘটনায় ওই ব্যাংক কর্মকর্তা মামলা দায়ের করেছেন। তার করা মামলায় চারজনকে আদালতে পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে।’

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *