২ মে থেকে অর্থ সহায়তা পাবে ৩৫ লাখ পরিবার

করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীনতা ও আয়ের সুযোগ কমে যাওয়া থেকে দেশের অতিদরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সুরক্ষা দিতে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে

আর্থিক সহায়তা দেওয়ার কার্যক্রম নেওয়া হয়েছে। জানা গেছে, গত বছর করোনা মহামারির কারণে নিম্ন আয়ের যারা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত

এবং কর্মহীন হয়ে পড়েছিল, তাদেরকে সহায়তার জন্য ‘নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান’ কর্মসূচি চালু করা হয়েছিল। ২০২০ সালে করোনা মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫ লাখ নিম্ন আয়ের পরিবারকে পরিবারপ্রতি ২ হাজার ৫০০ টাকা করে ৮৮০ কোটি টাকা আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়। মোবাইল ব্যাংকিং বা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি এই অর্থ দেওয়া হয়েছিল। গতবারের ধারাবাহিকতায় এবারও চলমান করোনা মহামারিতে

ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫ লাখ নিম্ন আয়ের পরিবারকে পরিবারপ্রতি ২ হাজার ৫০০ টাকা করে মোট ৮৮০ কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা দিতে সম্মতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (২ মে) তিনি এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। এ কার্যক্রমের আওতায় ৩৫ লাখ পরিবারকে ইএফটির মাধ্যমে তাদের নির্দিষ্ট মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্টে বা ব্যাংক একাউন্টে অর্থ সহায়তা সরাসরি পাঠানো হবে। অতিদরিদ্র, কর্মহীন নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠী যাতে এ কার্যক্রমের আওতায় আসে, সে লক্ষ্যে বরাদ্দ দেওয়ার ক্ষেত্রে দুর্যোগপ্রবণ, অতিদরিদ্র এলাকা এবং জনসংখ্যার

অনুপাত বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে দিনমজুর, কৃষক, শ্রমিক, পরিবহন শ্রমিক ইত্যাদি পেশার নিম্ন আয়ের লোকজন যাতে এ আর্থিক সহায়তা পান তা নিশ্চিত করা হয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রকৃত দরিদ্র ব্যক্তি চিহ্নিত করা হয়েছে, যাতে কেবলমাত্র প্রকৃত অতি দরিদ্র জনগোষ্ঠী এ অর্থ পায়।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *