পূর্ব সুন্দরবনের আগুনের ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি

পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের দাসেরভারানী টহল ফাঁড়ির বনে লাগা আগুন দু’দিনেও নেভেনি। আগুনের ঘটনা তদন্তের জন্য তিন সদস্যের

একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সোমবার (৩ মে) সকালে লাগা আগুনে আনুমানিক ১০ একর জায়গা জুড়ে বন পুড়ছে বলে ফায়ার

সার্ভিস জানিয়েছে। মঙ্গলবার (৪ মে) দুপুরে সরেজমিনে সুন্দরবনের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, বাগেরহাট, মোরেলগঞ্জ ও শরণখোলা ফায়ার ষ্টেশনের কর্মীরা মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে একটি পাইপের সাহায্যে পানি দিয়ে আগুন নেভানোর কাজ করছেন। আগুন একদিকে নিভলেও অপর দিক থেকে নতুন করে জ্বলে উঠছে এবং ধোয়ায় এলাকা আচ্ছন্ন হয়ে পড়ছে। বন বিভাগ ড্রোন উড়িয়ে বনের

আগুনের স্থান সমূহ চিহ্নিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। আরও পড়ুন: সুন্দরবনে আগুন জ্বলছে আগুনের ব্যাপকতা নিয়ে বনবিভাগ ও প্রত্যক্ষদর্শী গ্রামবাসীর হিসেবে বিস্তর ফারাক লক্ষ্য করা যায়। আগুন নেভানোর কাজে নিয়োজিত দক্ষিণ রাজাপুর, মাঝেরচর ও রসুলপুর গ্রামের আফজাল চাপরাশি, রেজাউল, সালাম ও সুমন বলেন, প্রায় ৯/১০ একর জায়গায় আগুন ছড়িয়েছে। বনবিভাগ বলছে দুই একর জমিতে আগুন লাগতে

পারে। সুন্দরবন সুরক্ষা কমিটির সদস্য সোনাতলা গ্রামের খলিলুর রহমান বলেন, বনের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্তভাবে আগুন জ্বলছে অবস্থা দৃষ্টে দুই তিন দিনেও আগুন পুরোপুরি নেভানো সম্ভব হবেনা এবং ৮/১০ একর জায়গার লতাপাতা ছোট গাছ পুড়ছে বলে তিনি জানান। বনসংলগ্ন গ্রামের রাস্তায় দাড়িয়েও প্রায় তিন কিলোমিটার দুরে বনের আগুনের ধোয়া উড়তে দেখা যায়। আরও পড়ুন: এখনও জ্বলছে সুন্দরবনের আগুন শরণখোলা ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন কর্মকর্তা আ. সাত্তার বলেন, আগুন নেভাতে বাগেরহাট মোরেলগঞ্জ শরণখোলার ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা কাজ করছে আগুন কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসলেও সম্পূর্ণ নেভাতে আরও একদিন সময় লাগতে পারে এ ছাড়া আগুন প্রায় ৯/১০ একর জায়গা নিয়ে

ছড়িয়েছে। সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান, আগুনের সঠিক কারণ জানার জন্য শরণখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. জয়নাল আবেদীনকে প্রধান এবং শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা আ. মান্নান ও ধানসাগর স্টেশন কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলামকে সদস্য করে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত কার্য দিবসের মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *